গেজেট প্রকাশের পর ভূমি আইনের বিলটি পাশ হয়েছে-জনসাধারণের আপত্তিগুলো নিষ্পত্তি করে এটি চূড়ান্তভাবে পাশ করা হয়েছে – দলিল যার জমি তার গেজেট ২০২৩ pdf

সত্যিই কি আইনটি পাশ হয়েছে?–দখলে থাকলেই মালিক নয়, থাকতে হবে দলিলসহ জমির প্রয়োজনীয় দস্তাবেজ। এ ক্ষেত্রে বৈধ দলিল বা আদালতের আদেশের মাধ্যমে মালিকানা বা দখলের অধিকারপ্রাপ্ত না হলে কোনো ব্যক্তি কোনো ভূমি দখলে রাখতে পারবেন না। পাশাপাশি জমির মিথ্যা দলিল করলে হবে সর্বোচ্চ সাত বছরের কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডের বিধান করা হয়েছে। এমন বিধান রেখে মঙ্গলবার ভূমি অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকার বিল-২০২৩ পাশ হয়েছে। ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী বিলটি পাশের প্রস্তাব করলে তা কণ্ঠভোটে পাশ হয়। এর আগে বিলের ওপর আনা জনমত যাচাই-বাছাই কমিটিতে প্রেরণ ও সংশোধনী প্রস্তাবগুলো নিষ্পত্তি হয়।

জমির দলিল বলতে কি বোঝায়? –দলিল অর্থে ভূমির মালিকানা হস্তান্তর বা বণ্টনের উদ্দেশ্যে সম্পাদিত বা কৃত যে কোনো দলিল, বায়না দলিল, রসিদ, আম মোক্তারনামা, নকশা, স্কেচ, ম্যাপ, হাত, নকশা, খতিয়ান, ডুপ্লিকেট কার্বন রসিদ, ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধের দাখিলা, বরাদ্দপত্র, ছাড়পত্র, অনাপত্তিপত্র, এফিডেভিট এবং এতদ্‌সংক্রান্ত অন্য কোনো দলিলও ইহার অন্তর্ভুক্ত হইবে।

ভূমি প্রতারণা ও অপরাধ হবে কি করলে? ভূমি হস্তান্তর, জরিপ, রেকর্ড হালনাগাদকরণ বা ব্যবস্থাপনা বিষয়ে নিম্নবর্ণিত কোনো কার্য ভূমি প্রতারণা সংক্রান্ত অপরাধ বলিয়া গণ্য হইবে, যথা:—অন্যের মালিকানাধীন ভূমি স্বীয় মালিকানাধীন ভূমি হিসাবে প্রচার করা হলেই অপরাধ হবে। তথ্য গোপন করিয়া কোনো ভূমি, সম্পূর্ণ বা উহার অংশবিশেষ, কোনো ব্যক্তি বরাবর হস্তান্তর বা সমর্পণ করা হলে অপরাধ হবে।  স্বীয় মালিকানাধীন ভূমির অতিরিক্ত ভূমি বা অন্যের মালিকানাধীন ভূমি, তদকর্তৃক ক্ষমতাপ্রাপ্ত না হইয়া, কোনো ব্যক্তি বরাবর হস্তান্তর বা সমর্পণ করলে অপরাধ হবে।

নতুন ভূমি আইন ২০২৩ দলিল যার জমি তার । দলিল যার জমি তার প্রজ্ঞাপন । নতুন ভূমি আইন ২০২৩ । দলিল ছাড়া জমি দখলে রাখা যাবে না । চূড়ান্ত গেজেট প্রকাশিত হয়েছে

কোনো ব্যক্তি অপর কোনো ব্যক্তি বলিয়া মিথ্যা পরিচয় প্রদান করিয়া বা জ্ঞাতসারে এক ব্যক্তিকে অপর ব্যক্তিরূপে প্রতিস্থাপিত করিয়া কোনো ভূমি সম্পূর্ণ বা উহার অংশবিশেষ হস্তান্তর বা সমর্পণ করলেও অপরাধ হবে। মিথ্যা বিবরণ সংবলিত কোনো দলিল স্বাক্ষর বা সম্পাদন করলেও ভূমি অপরাধ হবে। কর্তৃপক্ষের নিকট মিথ্যা বা অসত্য তথ্য প্রদান করা এবং এই আইনের উদ্দেশ্য পূরণকল্পে বিধি দ্বারা নির্ধারিত অন্য কোনো কার্য সম্পাদন। কোনো ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এ বর্ণিত কোনো অপরাধ সংঘটন করিলে তজ্জন্য তিনি অনধিক ৭(সাত) বৎসর কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডে দণ্ডনীয় হইবেন।

দলিল যার জমি তার আইন পাশ ২০২৩ । নতুন ভূমি অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকার আইন চূড়ান্ত ভাবে পাশ হয়েছে

ভূমি আইন ২০২৩ ডাউনলোড

ভূমি জালিয়াতি অপরাধ । নিচের যে কোন একট করলেই ভূমি আইনে অপরাধ হিসেবে গণ্য হইবে

  1. ভূমি হস্তান্তর, জরিপ, রেকর্ড হালনাগাদকরণ বা ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত নিম্নবর্ণিত কোনো কার্য ভূমি জালিয়াতি সংক্রান্ত অপরাধ বলিয়া গণ্য হইবে,
  2. কোনো ব্যক্তির ক্ষতি বা অনিষ্ট সাধন করিবার বা কোনো দাবি বা অধিকার সমর্থন করিবার অথবা কোনো ব্যক্তিকে কোনো সম্পত্তি পরিত্যাগ বা চুক্তি সম্পাদন করিতে বাধ্য করিবার অথবা প্রতারণা করা যাইতে পারে এইরূপ অভিপ্রায়ে কোনো মিথ্যা দলিল বা কোনো মিথ্যা দলিলের অংশবিশেষ প্রস্তুতকরণ;
  3. কোনো দলিল বা উহার অংশবিশেষ এইরূপ কোনো ব্যক্তি কর্তৃক বা তাহার কর্তৃত্ববলে প্রস্তুত, স্বাক্ষরিত, সিলমোহরকৃত বা সম্পাদিত বলিয়া বিশ্বাস করিবার অভিপ্রায়ে, যে ব্যক্তি কর্তৃক বা যে ব্যক্তির কর্তৃত্ববলে উহা প্রস্তুত, স্বাক্ষরিত, সিলমোহরকৃত বা সম্পাদিত হয় নাই বলিয়া সে জ্ঞাত বা অবগত, অথবা এইরূপ কোনো সময়, যে সময় উহা প্রস্তুত, স্বাক্ষরিত, সিলমোহরকৃত বা সম্পাদিত হয় নাই বলিয়া সে জ্ঞাত বা অবগত, অসাধু বা প্রতারণামূলকভাবে অনুরূপ দলিল বা উহার অংশবিশেষ প্রস্তুত, স্বাক্ষর, সিলমোহর বা সম্পাদন;
  4. কোনো দলিল সম্পাদিত হইবার পর আইনানুগ কর্তৃত্ব ব্যতিরেকে, অসাধু বা প্রতারণামূলকভাবে, উহার কোনো অংশ কর্তন করা বা অন্য কোনোভাবে উহার কোনো গুরুত্বপূর্ণ অংশের পরিবর্তন;
  5. সম্পূর্ণ বা অংশিকভাবে কোনো মিথ্যা দলিল প্রস্তুতকরণ;
  6. অসাধু বা প্রতারণামূলকভাবে কোনো ব্যক্তিকে কোনো দলিল স্বাক্ষর, সিলমোহর, সম্পাদনা বা পরিবর্তন করিতে বাধ্য করা হলেও অপরাধ হিসেবে গণ্য হইবে।

ভূমি অপরাধে শাস্তির বিধান অধিকতর কার্যকর হয়েছে?

হ্যাঁ। কোনো দলিল সম্পাদিত হওয়ার পর আইনানুগ কর্তৃত্ব ছাড়া প্রতারণামূলকভাবে দলিলের কোনো অংশ কাটা বা পরিবর্তন করলে তার সাজা হবে সর্বোচ্চ সাত বছরের কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড। সম্পূর্ণ বা আংশিকভাবে কোনো মিথ্যা দলিল প্রস্তুত করা, প্রতারণামূলকভাবে কোনো ব্যক্তিকে কোনো দলিলে সই বা পরিবর্তনে বাধ্য করার ক্ষেত্রেও একই সাজা ভোগ করতে হবে। ভূমি হস্তান্তর, জরিপ ও রেকর্ড হালনাগাদে অন্যের জমি নিজের নামে প্রচার, তথ্য গোপন করে কোনো ভূমির সম্পূর্ণ বা অংশবিশেষ কারও কাছে হস্তান্তর, ব্যক্তির পরিচয় গোপন করে জমি হস্তান্তর ও মিথ্যা বিবরণসংবলিত কোনো দলিলে স্বাক্ষর করলে তার সাজা হবে সর্বোচ্চ সাত বছরের কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড।

ভূমি আইন ২০২৩ । ভূমি ব্যবহারস্বত্ব গ্রহণ আইন ২০২০ খসড়া কপি ওয়ারিশ বন্টন ক্যালকুলেটর । ভূমি বাটোয়ারা আইন না জেনেও বাবার সম্পত্তি বুঝে নিবেন কিভাবে? নিবন্ধন বিধিমালা ২০১৪ । ভূমি নিবন্ধন, ফিস ও অন্যান্য আইন দেখুন
জমি খাস আইন ১৯৫০ । ৯২ ধারা মোতাবেক ভূমি খাস করা যায় কি? ভূমি অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকার ২০২৩ । দলিল ছাড়া জমি নিজের বলে দাবী করা যাবে না ভূমি জরিপ ইতিহাস । জরিপ কার্যক্রম কিভাবে পরিচালিত হয়?
সর্বশেষ ভূমি জরিপ । ভূমি জরিপ কখন হবে ২০২৩? Partition বা বাটোয়ারা আইন ও ইতিহাস । বন্টন বা বাটোয়ারা মামলা কতদিন চলে? এসিল্যান্ড অফিসের কর্মকর্তাদের বেতন ভাতাদি । ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তার বেতন কত?

ভূমি অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকার ২০২৩ । দলিল ছাড়া জমি নিজের বলে দাবী করা যাবে না

One thought on “দলিল যার জমি তার আইন পাস ২০২৩ । নতুন ভূমি অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকার আইন চূড়ান্ত ভাবে পাশ হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *