নিজের ক্রয়কৃত জমি বা ওয়ারিশসূত্রে প্রাপ্ত জমির নামজারির মাধ্যমেই খাজনা পরিশোধ করতে হবে- অন্যের জমির খাজনা পরিশোধ করা যাবে না – মিউটেশন কাগজ পত্র ২০২৩

ই-নামজারী অনলাইন করার ক্ষেত্রে প্রবাসীরা করতে পারবে? শিঘ্রই এ সমস্যা সমাধান করা হবে। যারা বাংলাদেশী নাগরিক এবং প্রবাসি এনআইডি নেই তারা এনআইডি সংগ্রহ করুন। সকল কাজে এখন এনআইডি লাগে। তাদের জন্ম নিবন্ধন বা পাসপোর্ট দিয়ে করার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। শুধু এনআইডি নয় পাসপোর্ট দিয়েও আবেদন করা যাবে।

নামজারি করে হোল্ডিং খুলে আমি কি কর দিতে পারব? হ্যাঁ। অনুগ্রহপূর্বক আপনি নামজারির কাজটি অনলাইনে এ সম্পন্ন করতে পারবেন যার মাধ্যমে আপনি নামজারির খতিয়ানটি পেতে পারবেন। নামজারি আবেদনের বিষয়ে জানতে https://mutation.land.gov.bd এই ওয়েবসাইটটি তে প্রবেশ করুন এবং আবেদন অপশনটি সঠিকভাবে তথ্য দিয়ে পূরন করে আবেদন করবেন। জমি খারিজ করতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ১) সংশ্লিষ্ট জমির এস এ খতিয়ানের ফটোকপি ২) আর এস খতিয়ানের ফটোকপি ৩) জমির দলিলের ফটোকপি ৪) বায়া দলিলের ফটোকপি (প্রয়োজন হলে) ৫) ওয়ারিশান সনদ ( প্রয়োজন হলে) ৬) ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধের দাখিলার কপি ৭) ভোটার আইডি কার্ড এর ফটোকপি ৮) এক কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি ৯) বণ্টন নামা দলিল প্রয়োজন হবে। জমি নামজারি ও জমা-খারিজ করতে সর্বমোট ১১৭০ টাকা লাগে। নামজারির আবেদন সম্পন্ন হতে ২৮ কার্য দিবস সময় প্রয়োজন। ধন্যবাদ।

জমি দলিলে যে নাম আছে এনআইডি তে সে নাম নেই এখন কিভাবে মিউটেশন করবো? আপনাকে প্রথমে এনআইডি নামের সাথে দলিল এর নাম সংশোধন করে নিতে হবে। জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন করার জন্য মোবাইল বা কম্পিউটার থেকে ভিজিট করুন services.nidw.gov.bd এই সরকারি ওয়েবসাইটে, জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার, জন্মতারিখ ব্যাবহার করে একাউন্ট রেজিস্টার করুন। মোবাইল নাম্বার যাচাই এবং ফেইস ভেরিফিকেশন করে nid website ড্যাশবোর্ড থেকে এডিট প্রোফাইলে ক্লিক করে প্রয়োজনীয় তথ্য সংশোধন করুন।

ইউনিয়ন ভুমি অফিসে খারিজ চালু আছে কি? / ইউনিয়ন ভূমি অফিসে খারিজ চালু আছে।

নানা মায়ের জমিটা আমাদের কে দিয়ে দিছে এখন এটা কিভাবে খারিজ করবো? ওয়ারিশ সনদ সহ অনুগ্রহ করে উক্ত বিষয়ে উপজেলা ভূমি অফিসের এসিল্যান্ড শাখায় যোগাযোগ করুন, ধন্যবাদ।

 

মিউটেশন কাগজ পত্র ২০২৩ । নামজারি করতে কতদিন সময় লাগে?

Caption: mutation documents

ওয়াকফ বা দেবোত্তর জমি নামজারি করা যাবে কিভাবে? । ওয়াকফ বা দেবোত্তর জমির নামজারি

  1. ওয়াকফ ও দেবোত্তর সম্পত্তি সাধারণভাবে বিক্রয় বা হস্তান্তর নিষিদ্ধ ।
  2. অপরিহার্য প্রয়োজনে ওয়াকফ সম্পত্তির কিছু অংশ বিক্রয় বা হস্তান্তর করতে হলে ওয়াকফ প্রশাসকের নিকট অবেদন করতে হয়, ওয়াকফ প্রশাসকের সভাপতিত্বে গঠিত একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি যাচাই বাছাই করে প্রস্তাবিত হস্তান্তর একান্তই অপরিহার্য দেখা গেলে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন সাপেক্ষে বিক্রয় বা হস্তান্তরের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।
  3. অপর দিকে দেবোত্তর সম্পত্তি বিক্রয় বা হস্তান্তরের অনুমোদনের জন্য বিজ্ঞ আদালতে যেতে হয়।
  4. কাজেই ওয়াকফ সম্পত্তি ক্রেতার আবেদনে নামজারি করতে হলে দলিল ছাড়াও অবশ্যই ওয়াকফ প্রশাসকের মাধ্যমে বৈধভাবে অনুমতি প্রাপ্ত কিনা তার প্রমাণপত্র লাগবে।
  5. দেবোত্ত্বর সম্পত্তি ক্রেতার আবেদনে নামজারি করতে হলে অবশ্যই দলিল ছাড়াও বিজ্ঞ সিভিল কোর্টের রায় ডিক্রির প্রমাণ পত্র দেখতে হবে।

মিউটেশন সরকারি ফি কত?

ভূমি মন্ত্রণালয়ের ৩০/০৬/২০১৫ তারিখের ৩১.০০.০০০০.০৪২.০৪.০১৯.০৮-৫৯৮ নং পরিপত্র অনুযায়ী নামজারি/মিউটেশনের জন্য প্রয়োজনীয় ফি গুলো হল: ক) আবেদনের জন্য কোর্ট ফি – ২০ টাকা। খ) নোটিশ জারি ফি – ৫০ টাকা। গ) রেকর্ড সংশোধন বা হালকরণ ফি – ১,০০০ টাকা। ঘ) প্রতি কপি মিউটেশন খতিয়ান সরবরাহ বাবদ – ১০০ টাকা। বাস্তবতা যদিও সম্পূর্ণ ভিন্ন অনলাইনে আবেদন নিষ্পত্তি তখনই হয় যখন আপনি কোন দালাল বা ভেন্ডারের মাধ্যমে মোটা অংক অর্থাৎ ৮-৯ হাজার টাকা ব্যয় করেন।

মৌজা ভিত্তিক জমির মূল্য তালিকা ২০২৩ । করটিয়া মৌজার জমির সরকারি দাম কত? ভূমি উন্নয়ন কর আইন ২০২৩ । ভূমি কর বকেয়া পড়লে কত শতাংশ জরিমানা দিতে হবে? অনলাইনে খারিজ করার নিয়ম । ই-নামজারি আবেদন নিস্পত্তির ধাপসমূহ দেখুন
ই-নামজারি শুনানি ও মোবাইল মেসেজ । মিউটেশন আবেদনের পরবর্তী করণীয় কি? E Mutation BD । নামজারি আবেদনের সর্বশেষ অবস্থা দেখুন [জমি খারিজ] E Mutation । ই মিউটেশন আবেদনের সর্বশেষ অবস্থা অনলাইনে জানতে পারবেন
অনলাইনে জমির খারিজ করার উপায় । জমি নামজারি বা খারিজের জন্য কত টাকা দিতে হয়? নামজারির গুরুত্ব । নামজারি ও খারিজের আইন দেখে নিন নামজারি করার নিয়ম ২০২৩ । নামজারি সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ ৪৩ টি জিজ্ঞাসা ও উত্তর