NID কার্ডে পিতা-মাতার নাম সংশোধন: যে সকল কাগজপত্র লাগবে

আমাদের অনেকের NID কার্ডে অনেক ভুল তথ্য রয়েছে। বিশেষ করে অনেকের ক্ষেত্রে পিতা মাতার নামের বানানে। ভুল রয়েছে।

এক্ষেত্রে ভুলগুলো সাধারণত নিম্নরূপ হয়ে থাকে:

  • পিতা অথবা মাতার নামের বানানে ভুল রয়েছে।
  • পিতা অথবা মাতার নামের একাংশ বাদ পড়েছে।
  • পিতা অথবা মাতা জীবিত অবস্থায় আছেন তবে ভুল বশত NID কার্ডে তাদের নামের পূর্বে Late বা মৃত শব্দটা রয়েছে।
  • পিতা অথবা মাতা জীবিত নেই কিন্তু NID কার্ডে Late বা মৃত শব্দটার উল্লেখ নেই। এখন আপনি Late বা মৃত শব্দটা যুক্ত করতে চাচ্ছেন।

সাধারণত উপরোক্ত ভুলগুলো হয়ে থাকে।

চলুন আজ আমরা জেনে নেই, পিতা মাতার নাম সংশোধন, না-মের কোন অংশ সংশোধন অথবা Late শব্দটি সংযোজন/ বিয়োজন করতে চাইলে আমাদেরকে কি করতে হবে? কি কি কাগজপত্র সংযুক্ত করতে হবে?

উপরোক্ত সংশোধন করার জন্য প্রথমেই আপনাকে আবেদন করতে হবে। আবেদনপত্রের সহিত নিম্নোক্ত কাগজপত্র সংযোজন করতে হবে:

  1. আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ প্রদান করতে হবে। সেটা হতে পারে SSC, HSC, অনার্স, মাস্টার্স অথবা অন্য যেকোন শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ। তবে খেয়াল রাখতে হবে উক্ত সনদে যেন আপনার পিতা অথবা মাতার নাম উল্লেখ থাকে। আগের অনেকে সার্টিফিকেটে পিতার নাম উল্লেখ থাকলেও মাতার নাম উল্লেখ থাকতো না, তাই মাতার নাম সংশোধন করতে চাইলে মাতার নাম উল্লেখ আছে এমন সার্টিফিকেট সংযুক্ত করুন। এটা হতে পারে আপনার পাসপোর্ট, জন্ম নিবন্ধন, ড্রাইভিং লাইসেন্স, মার্কশিট, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রশংসাপত্র ইত্যাদি। উপরের কোনটি না থাকলে আপনার ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা অথবা সিটি করপোরেশন থেকে একটি প্রত্যয়ন পত্র সংগ্রহ করতে পারেন।
  2. পিতা অথবা মাতার NID কার্ডের ফটোকপি। প্রযোজ্য ক্ষেত্রে আপনার ভাই অথবা বোনের NID কার্ডের ফটোকপি।
  3. পিতা অথবা মাতার নামের পূর্বে ভুল বশত Late বা মৃত শব্দটা থাকলে তা সংশোধনের জন্য আপনার স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ, সিটি করপোরেশন অথবা পৌরসভা থেকে একটি প্রত্যয়ন পত্র সংগ্রহ করতে হবে। এক্ষেত্রে আপনার পিতা অথবা মাতার NID কার্ডের ফটোকপিও জমা দিতে হবে।
  4. পিতা অথবা মাতা মারা গিয়ে থাকলে এবং আপনার NID কার্ড তাদের নামের পূর্বে Late বা মৃত শব্দটা যুক্ত করতে চাইলে প্রথমেই তাদের মৃত্যু সনদ বা Death Certificate লাগবে এবং তাদের NID কার্ডের ফটোকপি সংযুক্ত করতে হবে।


আবেদন পত্রের সহিত উক্ত কাগজপত্র সংযুক্ত করে জমা দেওয়ার পর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা চাইলে তা তদন্ত বা যাচাই বাছাই করে দেখবেন। যাচাই-বাছাইয়ে তথ্য সঠিক প্রমানিত হলে তিনি আপনাকে সংশোধিত NID কার্ড প্রদান করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *