সরকার কর্তৃক ১৯৫০ সনে জমিদারি অধিগ্রহন ও প্রজাস্বত্ব আইন জারি করার পর যে খতিয়ান প্রস্তুত করা হয় তাকে এস,এ খতিয়ান বলা হয়-এস এ খতিয়ান বের করার নিয়ম

জমির পর্চা বের করার নিয়ম কি? – অনলাইনে খতিয়ান/পর্চা দেখার জন্য আপনাক https://eporcha.gov.bd ওয়েব সাইটটিতে প্রবেশ করতে হবে। উক্ত ওয়েব সাইটটির খতিয়ান/পর্চা অনুসন্ধান অপশনটি বাছাই করে সেখানে উল্লেখিত সকল তথ্য গুলো সঠিকভাবে পূরণ করে খতিয়ানের অনলাইন কপিটি দেখতে হবে। বিস্তারিত জানতে ভুমি সেবা হেল্প লাইন ১৬১২২ নম্বরে কল করুন।

জমি ইজারা নিলেও কি নামজারি করতে হয়? হ্যাঁ। খাসকৃষি জমি বন্দোবস্ত অনুমোদিত এবং কবুলিয়ত সম্পাদিত ও রেজিস্ট্রেশন হলে নামজারি করে খতিয়ান খুলতে হয়। খাসকৃষি জমি বন্দোবস্ত অনুমোদিত এবং কবুলিয়ত সম্পাদিত ও রেজিস্ট্রেশন হলে সহকারি কমিশনার নিজ উদ্যোগে রেজিস্টার্ড কবুলিয়ত ফেরত পেলে বন্দোবস্ত গ্রহীতার নামে খতিয়ান খুলে দিবেন এবং উহার এক কপি বন্দোবস্ত গ্রহীতাকে দিবেন।

সরকারি খাস বা খাস জমি কত ধরণের বা প্রকারের হতে পারে? বন্দোবস্তযোগ্য বিবেচনায় সরকারি খাস বা খাস জমি ২ (দুই) ধরণের বা প্রকারের হতে পারে যেমন- বন্দোবস্তযোগ্য ও বন্দোবস্ত অযোগ্য আবার ব্যবহরের দিক দিয়ে দুধরণের হতে পারে যেমন: কৃষি সরকারি খাস বা খাস জমি ও অকৃষি সরকারি খাস বা খাস জমি।

এস এ খতিয়ান অনলাইন । এস এ খতিয়ান যাচাই

উত্তরাধিকার সুত্রে পাওয়া একটি জমির রেকর্ড করতে পারেন। ইউনিয়ন ভুমি তহসিলদার এর কাছে এখন ঐ রেকর্ডের কপিটি অনলাইনে এসেছে এবং রেকর্ড সম্পন্ন হয়েছে কিনা তথ্য যাচাই করুন। এমতাবস্থায় কি ঐ রেকর্ডের কপি ইউনিয়ন ভুমি অফিস হতে ম্যানুয়ালি বা অনলাইনে খারিজের মাধ্যমে রেকর্ড তুলতে পারবেন।

৫. কিভাবে আমি আমার আর এস খতিয়ান পাব

Caption: Apply for e khotian

পর্চা বা খতিয়ান সার্চ করার নিয়ম দেখুন । যেভাবে আপনি কোন মৌজার খতিয়ান বা পর্চা সার্চ করে বের করবেন

  1. প্রথমে eporcha.gov.bd লিংকে প্রবেশ করুন।
  2. বিভাগ, জেলা ও উপজেলা সিলেক্ট করুন।
  3. মৌজা ঘরে মৌজার নাম লিখে (বাংলায়) সার্চ করুন এবং সিলেক্ট করুন। (মনে রাখবেন মৌজার নাম বাংলায় সঠিক বানানে লিখতে হবে বা খুজে বের করতে হবে।
  4. খতিয়ানের তালিকা ঘরে ইংরেজীতে খতিয়ান নম্বর বা বাংলায় মালিকের নাম লিখে খুজুন ক্লিক করুন।
  5. খতিয়ান বা নামের উপর ডাবল ক্লিক করলে দাগ নম্বর গুলো দেখাবে।
  6. বিস্তারিত ক্লিক করে বস্তিারিত দেখতে পারবে এবং খতিয়ান আবেদনের ক্লি করে অনলাইন বা সার্টিফাইড খতিয়ানের জন্য আবেদন করতে পারবেন।
  7. অনলাইনেই ফি পরিশোধ করা যায়।

খতিয়ান তোলার আবেদন লিংক পাচ্ছেন না?

অনুগ্রহপূর্বক https://eporcha.gov.bd এই ওয়েবসাইট এ প্রবেশ করুন। এরপর নাগরিক কর্নার থেকে খতিয়ান আবেদন অপশনটি নির্বাচন করে খতিয়ান অনলাইন আবেদন ফরম এ গিয়ে ফরমের যাবতীয় তথ্যাদি (বিভাগ, জেলা, উপজেলা, খতিয়ানের ধরন, মৌজা বা জে এল নম্বর, খতিয়ান নং/ দাগ নং/মালিকানা নাম/ পিতা বা স্বামীর নাম) দিয়ে অনুসন্ধানের মাধ্যমে সার্টিফাইড কপিটি সংগ্রহের মাধ্যমে উক্ত বিষয়টি সম্পর্কে জানতে পারবেন। দখলদার বা জমির খতিয়ানের তালিকায় ডাবল ক্লিক করলেই আবেদন লিংক দেখাবে।

খতিয়ানের সার্টিফাইড কপির জন্য আবেদন করা যাচ্ছে না?

এস এ খতিয়ান/পর্চা অনলাইন আবেদনে মৌজা অপশনে রায়পুরা মৌজা অন্তর্ভুক্ত নেই। ফলে আপনি কাংখিত মৌজার পর্চার আবেদন করতে পারছি না। যে মৌজা আপলোড করা হয়নি তা অনলাইনে পাওয়া যাবে। কাজ চলমান আছে।আপতথ সহকারি কমিশনার (ভূমি) যোগাযোগ করে অগ্রগতি জানতে পারেন।জরুরী হলে ডিসি অফিস রেকর্ড রুম হতে আবেদন করে সংগ্রহ করতে পারেন। অনুরোর করছি http://support.eporcha .gov.bd/ এই ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে আপনার সমস্যাটি জানিয়ে সহায়তা করবেন।

এস এ খতিয়ান অনলাইন কপি । ফ্রিতে পর্চা বের করবেন যেভাবে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *