প্রবাসী কর্মী বীমা ২০২৩ । মাত্র এককালীন ১ হাজার টাকা প্রিমিয়ামে ১০ লক্ষ টাকার কভারেজ

বীমা একটি আর্থিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা, শিক্ষা বীমা জীবন বীমার মত প্রবাসী কর্মী বীমা প্রবাসীদের কল্যানে করা হয় – প্রবাসী কর্মী বীমা ২০২৩

বীমা কি? – বীমা হল অর্থের বিনিময়ে জীবন, সম্পদ বা মালামালের সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতির ন্যায়সঙ্গত ও নির্দিষ্ট ঝুঁকির স্থানান্তর। এর মাধ্যমে ব্যক্তি বা বীমা প্রতিষ্ঠান অর্থের (প্রিমিয়ামের) বিনিময়ে মক্কেলের আংশিক বা সমস্ত সম্ভাব্য ঝুঁকি গ্রহণ করে থাকে। এটি অনিশ্চিত ক্ষয়ক্ষতি এড়ানোর জন্য ঝুঁকি ব্যবস্থাপনার একটি অংশ।

প্রবাসী কর্মীদের জন্য ডিসেম্বর ২০১৯ হতে বীমা সুবিধা চালু করা হয়। এ লক্ষ্যে বিদেশগামী বাংলাদেশী কর্মীদের বাধ্যতামূলক বীমার আওতায় আনয়নের জন্য ২১ ডিসেম্বর ২০১৯ প্রথম জীবন বীমা কর্পোরেশনের সাথে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের “প্রবাসী কর্মী বীমা” চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। পরবর্তীতে এ চুক্তি ১১ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখ হতে ১০ ডিসেম্বর 2022 তারিখ পর্যন্ত ২ (দুই) বছরে মেয়াদে নবায়ন করা হয়। বিদ্যমান এ চুক্তি পুনঃমূল্যায়ন করে নিম্নোক্ত পরিকল্পটি গ্রহণের জন্য সূত্রস্থ স্মারকে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা রয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক বর্ণিত পরিকল্প অনুযায়ী জীবন বীমা কর্পোরেশনের সাথে “প্রবাসী কর্মী বীমা” চুক্তি অতি শীঘ্রই নবায়ন করা হবে যা ১১ ডিসেম্বর 2022 তারিখ হতে কার্যকর হবে। চাকুরিচ্যুত হয়ে ০৬ মাসের মধ্যে ফেরত আসলে ৫০ (পঞ্চাশ) হাজার টাকা প্রদান করা হবে।

বিদ্যমান বীমা পরিকল্প অনুযায়ী বিএমইটি কর্তৃক বহির্গমন ছাড়পত্র প্রদানের সময় কল্যাণ ফি এর সাথে অতিরিক্ত বীমা প্রিমিয়াম বাবদ ৪৯০/- প্রত্যেক বিদেশগামী কর্মীর নিকট হতে আদায় করা হয়। বিএমইটি কর্তৃক প্রদত্ত প্রাক- বহির্গমন ওরিয়েনটেশন (PDO) প্রদানকালে, বিভিন্ন মেলা ও রিক্রুটিং এজেন্সিসহ অন্যান্য সংশ্লিষ্ট সংস্থার সাথে সভা- সমাবেশের আলোচনায় প্রবাসী কর্মী ও তাঁদের পরিবারকে বীমা সুবিধার বিষয়টি গুরুত্বের সাথে অবহিত করা প্রয়োজন।

প্রবাসী কর্মী বীমা ২০২৩ / স্বল্প ব্যয়ে সরকার পৃষ্ঠপোষকতায় এ বীমা প্রবাসীদের জন্য কল্যান বয়ে আনবে

চাকুরিচ্যুত হয়ে ০৬ মাসের মধ্যে ফেরত আসলে ৫০ (পঞ্চাশ) হাজার টাকা প্রদান করা হবে।

Caption: Probashi Insurance Policy by govt.

প্রবাসী বীমা পরিকল্পটা কেমন? এটি অবশ্যই করে যাওয়া উচিৎ

  1. পরিকল্প শিরোনাম হচ্ছে প্রবাসী কর্মী বীমা
  2. বীমা অংক ১০ (দশ) লক্ষ টাকা
  3. বীমার মেয়াদ ০৫ (পাঁচ) বছর
  4. বয়স সীমা ১৮-৫৫ বছর
  5. প্রদেয় প্রিমিয়াম- ১০০০ (এক হাজার) টাকা এককালীন
  6. অতিরিক্ত সুবিধা- চাকুরিচ্যুত হয়ে ০৬ মাসের মধ্যে ফেরত আসলে ৫০ (পঞ্চাশ) হাজার টাকা প্রদান করা হবে।

প্রতিমাসে কি প্রিমিয়াম দিতে হবে?

না। এ বীমার জন্য প্রতিমাসে প্রিমিয়াম দিতে হবে না। বীমা কালে মাত্র একবারই প্রিমিয়াম দিতে হবে। মাত্র ১০০০ টাকা প্রিমিয়াম দিতে হবে এবং কল্যাণ ফি এর সাথে প্রিমিয়াম বাবদ ৪৯০ টাকা প্রবাসে যাওয়ার সময় আদায় করা হবে। এতে করে ৫ বছরের মধ্যে মারা গেলে বা কোন ক্ষতি হলে এ বীমার আওতায় পরিবার সুবিধা ভোগ করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *