সরকারি ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণীর চাকরির লিখিত পরীক্ষার প্রস্তুতি

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে সকল চাকুরী প্রার্থীর প্রথম পছন্দ সরকারি চাকুরি। কেন পছন্দ হবেই না বলুন? ভাল চাকুরির ৩ টি মাপকাঠি হতে পারে যেমনঃ চাকুরির নিরাপত্তা, আর্থিক সুযোগ সুবিধা এবং সামাজিক মর্যাদা। এসব বৈশিষ্ট্যে সরকারি চাকুরির কোন তুলনা নেই।

কিন্তু সরকারি চাকুরি তো সোনার হরিণ! অনেক প্রস্তুতি নিয়ে হয়তো প্রতিবার প্রিলিমিনারিতে পাশ করছেন কিন্তু লিখিত পরীক্ষায় ভাল করতে পারছেন না। তবে এই পোস্ট টি আপনার জন্যই।

বাংলাদেশের সেরা কিছু সরকারি চাকুরি কি কি-তা জানতে এই পোস্ট টি পড়ুন

চলুন আজ জানি কিভাবে সরকারি ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণীর চাকুরির লিখিত পরীক্ষার প্রস্তুতি নিবেন।

১। কাট মার্কস নিয়ে না ভেবে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নিন

অনেকেই কাট মার্কস নিয়ে ভাবেন। তাদের ধারনা ৫০% বা ৬০% মার্কস পেলেই চান্স! কাট মার্কস ভুলেও মাথায় আনবেন না। মনে রাখুন চাকুরির পরীক্ষা মানেই প্রতিযোগিতা মূলক পরীক্ষা, সুতরাং সর্বোচ্চ মার্কস পেতে চেষ্টা করুন। অন্তত ৮০% মার্কস এর টার্গেট রাখুন।

২। ধারাবাহিকতা রক্ষা করে প্রশ্নের উত্তর লিখুন

একাডেমিক পরীক্ষায় আমরা যে প্রশ্নের উত্তর ভাল পারি তা আগে উত্তর করি। এটাই সাধারণ নিয়ম। কিন্তু চাকুরির পরীক্ষায় এ কাজটি ভুলেও করতে যাবেন না। বরং প্রশ্নের ধারাবাহিকতা রক্ষা করে উত্তর দিন অর্থাৎ ১,২,৩… এভাবে। সন্দেহ থাকলে ডিউটিরত শিক্ষক/ কর্মকর্তা দের কাছে জেনে নিতে পারেন, তবে সাধারণ ভাবে ধারাবাহিক ভাবে লিখাই শ্রেয়।

৩। হাতের লিখা যথাসম্ভব সুন্দর করুন

৩য় এবং ৪র্থ শ্রেনীর সরকারি চাকুরির পরীক্ষায় প্রায়ই সারাংশ, চিঠি, দরখাস্ত, প্রবন্ধ, ভাব-সম্প্রসারণ ইত্যাদি আসে। আর তাই লিখিত পরীক্ষায় হাতের লিখা যথাসম্ভব সুন্দর করে লিখুন। মনে রাখবেন হাতের লিখা দর্পণ স্বরূপ সুতরাং এবিষয়ে যত্নবান হোন।

৪। বানানের দিকে খেয়াল রাখুন

আপনি হয়তো লিখিত বিষয় ঠিক মত ফুটিয়ে তুলছেন, একই সাথে বানান গুলো ঠিক হওয়া বাঞ্ছনীয়। ভুল বানান আপনার মার্কস কমিয়ে দেয়ার পাশাপাশি আপনার যোগ্যতা সম্পর্কে নিয়োগকর্তার মনে নেগেটিভ ধারণা তৈরি করবে।

৫। প্রাসঙ্গিক বিষয় সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করুন

Quantity এর চেয়ে Quality কে গুরুত্ব দিন। পেজ ভর্তি করে লিখার চেয়ে, প্রাসঙ্গিক বিষয় সরাসরি উত্তর লিখুন।

মামা খালু ছাড়া নিজ যোগ্যতায় চাকুরি পেতে পড়ুন

উপরোক্ত ৫টি বিষয় অনেকের কাছে খুব সাধারণ মনে হতে পারে। কিন্তু প্রকৃত পক্ষে এবিষয় গুলো পার্থক্য তৈরি করে। এ ট্রিকস গুলো ফলো করে অনেকেই সফল হতে পারবেন বলে ইনশাআল্লাহ আশা করা যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *