সহোদর ভাই বোন একই স্কুলে ভর্তি নীতিমালা ২০২৩ । ১ম শ্রেণি হতে ৯ম শ্রেণিতে ভর্তির ক্ষেত্রে নির্দেশনা

প্রথম হতে ৯ম শ্রেণী পর্যন্ত ভর্তি নীতিমালা সংশোধন করা হয়েছে–২০২৩ শিক্ষাবর্ষে ১ম শ্রেণি হতে ৯ম শ্রেণিতে সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই/বোন এর ভর্তির নির্দেশনা জারি করেছে – সহদোর ভাই বোন একই স্কুলে ভর্তি নীতিমালা ২০২৩

ভর্তির সময় কি বর্ধিত করা হয়েছে? – মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর কর্তৃক ২০২৩ শিক্ষাবর্ষে ১ম শ্রেণি হতে ৯ম শ্রেণিতে সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই/বোন এর ভর্তি সংক্রান্ত একটি আদেশ জারি করা হয়েছিল। উক্ত আদেশের অনুচ্ছেদ ২ এর ২.৬ এ উল্লিখিত সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই/বোন এর ভর্তির আবেদন নিষ্পত্তির তারিখ ১৫/০১/২০২৩ এর পরিবর্তে ৩১/০১/২০২৩ খ্রি. পর্যন্ত নির্দেশক্রমে বর্ধিত করা হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও অধীনস্থ দপ্তর/সংস্থায় কর্মরত কর্মকর্তা/কর্মচারীদের সন্তানদের ক্ষেত্রে মহানগর, বিভাগীয়,জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তির জন্য ন্যূনতম যোগ্যতা থাকা সাপেক্ষ্যে ২% কোটা সংরক্ষিত থাকবে। যদি আবেদনকারীর সংখ্যা বেশি হয় সেক্ষেত্রে তাদের নিজেদের মধ্যে লটারি অনুষ্ঠিত হবে। আবেদনের সাথে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা/কর্মচারীর দপ্তর প্রধানের/নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষের প্রত্যয়নপত্র দাখিল করতে হবে। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা নিজস্ব দপ্তরের প্রধান হলে সেক্ষেত্রে তাঁর একধাপ উপরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তার প্রত্যয়নপত্র দাখিল করতে হবে। সারাদেশের মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভর্তি প্রক্রিয়া ২০২৩ । ১ম- ৯ম শ্রেণি পর্যন্ত ডিজিটাল লটারি পরবর্তী ভর্তি কার্যক্রম সংক্রান্ত

কোন প্রতিষ্ঠানে আবেদনকারী শিক্ষার্থীর সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই/বোন যদি পূর্ব থেকে অধ্যয়নরত থাকে সে সকল সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই/বোন কে সংশ্লিষ্ট ভর্তি কমিটি আবেদন যাচাই- বাছাই করে ভর্তির প্রযোজনীয ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। তবে এ সুবিধা কোন দম্পত্তির সর্বোচ্চ ০২ (দুই) সন্তানের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে।

অনলাইন সিলেকশন হওয়ার পরও স্কুল পরিবর্তন করা যাবে / ১-৯ শ্রেণীতে ভর্তি নীতিমালা সংশোধন করা হয়েছে

এ সংশোধনীর ফলে ভাই ভাই অথবা ভাই বোন একাধিক স্কুলে চান্স পেলে একই স্কুলে ভর্তি হতে পারবেন। নির্বাচন কমিটি ৫% শিক্ষার্থীকে এ নিয়মে ভর্তি করতে পারবেন।

২০২৩ শিক্ষাবর্ষে ১ম শ্রেণি হতে ৯ম শ্রেণিতে সহোদর-সহোদরা বা যমজ ভাইবোন এর ভর্তি সংক্রান্ত

ডিজিটাল লটারির মাধ্যমে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের ভর্তি গ্রহণের সময় যে বিষয়গুলো আবশ্যিকভাবে অনুসরণ করতে হবে

  1. ভর্তিকালীন নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের কাগজপত্র পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে যাচাই করতে হবে;
  2. নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের কাগজপত্র যাচাইকালীন শিক্ষার্থীর জন্ম সনদের মূল কপি, জন্ম সনদের অনলাইন কপি (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে অনলাইনে যাচাই করতে হবে), পিতা-মাতার জাতীয় পরিচয়পত্রের মূল কপি ভালো করে দেখতে হবে;
  3. মিথ্যা তথ্য প্রদানের মাধ্যমে কোন শিক্ষার্থী নির্বাচিত হয়ে থাকলে (যাচাই সাপেক্ষে) তাকে ভর্তি করা যাবে না;
  4. একই শিক্ষার্থী অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন নম্বর বার বার পরিবর্তন করে মিথ্যা তথ্য প্রদানের মাধ্যমে একাধিকবার নির্বাচিত হয়ে থাকলে (যাচাই সাপেক্ষে) জালিয়াতির কারণে তাকে ভর্তি করা যাবে না;
  5. শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক সর্বশেষ জারিকৃত ভর্তি নীতিমালায় যে সকল কোটা সংরক্ষিত রয়েছে ভর্তির সময়ে উক্ত কোটাসমূহে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের কোটা সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র যথাযথভাবে যাচাই করতে হবে। শুধুমাত্র মুক্তিযোদ্ধা কোটা ব্যতিত অন্যান্য সংরক্ষিত কোটায় শূন্য আসন পূরণ না হলে সাধারণ নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে অপেক্ষমান তালিকার ক্রমানুসারে উক্ত শূন্য আসন পূরণ করতে হবে। কোনভাবেই আসন শূন্য রাখা যাবে না;
  6. সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই/বোন এর ভর্তি বিষয়ে সরকারি ও বেসরকারি ভর্তি নীতিমালা- ২০২২ এ স্পষ্টীকরণ করা হয়েছে। এক্ষেত্রে নীতিমালা অনুযায়ী সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই/বোন কে সংশ্লিষ্ট ভর্তি কমিটি আবেদন যাচাই-বাছাই করে ভর্তির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। তবে এ সুবিধা কোন দম্পতির সর্বোচ্চ ০২ (দুই) সন্তানের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে;
  7. সর্বোপরি, শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক সর্বশেষ জারিকৃত ভর্তি নীতিমালা অনুযায়ী ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করতে হবে;
  8. উপরোল্লিখিত নির্দেশনা অনুসরণ না করে বিধিবহির্ভূতভাবে কোন শিক্ষার্থী ভর্তি করা হলে এবং পরবর্তীতে তা প্রমাণিত হলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান প্রধান দায়ী থাকবেন।

কত% ভাইবোনকে ভর্তি করা যাবে?

২০২৩ শিক্ষাবর্ষের জন্য কোন প্রতিষ্ঠানে এন্ট্রি শ্রেণিসহ অন্যান্য শ্রেণিতে মোট আসনের অতিরিক্ত ৫% শিক্ষার্থী সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই/বোনের ভর্তির জন্য আবেদনকারীদের মধ্যে থেকে ভর্তি করাতে পারবে। তবে আবেদন সংখ্যা অধিক হলে ভর্তি কমিটি কর্তৃক লটারির মাধ্যমে উক্ত ৫% শিক্ষার্থী নির্বাচন করা যেতে পারে। উল্লেখ্য, ২০২৪ শিক্ষাবর্ষ হতে কেন্দ্রীযভাবে শিক্ষার্থী নির্বাচন প্রক্রিয়ার সফটওয়্যারে বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

ডিজিটাল লটারি পরবর্তী ভর্তি কার্যক্রম ২০২২ । প্রতিষ্ঠান প্রধান কোন শিক্ষার্থীকে ভর্তি করাতে পারবেন না

4 thoughts on “সহোদর ভাই বোন একই স্কুলে ভর্তি নীতিমালা ২০২৩ । ১ম শ্রেণি হতে ৯ম শ্রেণিতে ভর্তির ক্ষেত্রে নির্দেশনা

  • 22/01/2023 at 10:12 pm
    Permalink

    অনলাইন সিলেকশন হওয়ার পরও স্কুল পরিবর্তন করা যাবে ১-৯ শ্রেনীতে ভর্তি নীতিমালা সংশোধন করা হয়েছে ।
    উক্ত স্কুল পরিবর্তনের কোন চিঠি আপনার কাছে আছে ।

    চান্স না পাওয়া বাচ্চাদের সহোদরের ৫% নিতে বলছে । আমার বাচ্চা চান্স পেয়েছে । আগের বাচ্চা ৮মে শ্রেনীতে চলমান আছে । এবছরে ছোট বাচ্চা অন্য স্কুলে হয়েছে । নতুন চান্স পাওয়া বাচ্চা কে পুরাতন বাচ্চার স্কুলে ভর্তি করাতে চাই ।
    আিইনি কোন চিঠি আছে ।

    Reply
    • 23/01/2023 at 6:39 pm
      Permalink

      মাইগ্রেশন করান।

      Reply
  • 25/01/2023 at 8:11 pm
    Permalink

    সহোদর। বলতে যা বোঝায়। চান্স না পাওয়া বাচ্চা দের আবেদন করতে দিয়ে প্রকৃত সহোদর ব্যাখ্যা পরিবর্তন হয়ে গেছে।। যে সহোদর অন্য স্কুলে চান্স পেয়েছে তাকে এক স্কুল পড়ার সুযোগ ই সহোদরের প্রকৃত অর্থে ব্যাখ্যা। যেহেতু ৫%

    শিক্ষা ব্যবস্থার অধঃপতন
    সঠিক ভাবে নীতিমালা প্রণয়ন করে ডিসেম্বরের মধ্যে সকল বাচ্চাদের ভর্তি শেষ। জানুয়ারি 1তারিখে সকল বাচ্চাদের ব ই দেয়া হবে। একবার নীতিমালা প্রণয়ন করে বলছে সকল সহোদরের ভর্তি নিশ্চিত করতে হবে । কাউকে ভর্তি না করলে দায়ী থাকবেন। আরেক বার বলছে 5% । আবার পূর্নাঙ্গ নীতিমালা ব্যাখ্যা নাই।

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *