মাংকি পক্স কিভাবে ছড়ায়, লক্ষণ কি, কতটা ভয়ংকর জেনে নিন।

আফ্রিকা থেকে ছড়িয়ে পড়া মাংকিপক্স বা মাঙ্কিপক্স নামে এক রোগ যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, অস্ট্রেলিয়ার পাশাপাশি ইউরোপের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। ইউরোপের ৮ থেকে ১০ টি দেশে এখন পর্যন্ত এই রোগ ছড়িয়ে পড়েছে।

আসুন জানি মাংকিপক্স বা মাঙ্কিপক্স রোগ কি?

মাংকিপক্স এক ধরনের ভাইরাল ইনফেকশন, যে ভাইরাস পশ্চিম আফ্রিকা ও মধ্য আফ্রিকার জঙ্গলের ছোট আকারের স্তন্যপায়ী প্রাণি ও ইদুর জাতীয় প্রানীর মধ্যে থাকে। এই প্রানীর সংস্পর্শে আসলে মানুষ এই রোগে সংক্রমিত হয়। পরবর্তীতে মানুষ থেকে মানুষে এই রোগ সংক্রমিত হয়। তবে মানুষ থেকে মানুষের এ সংক্রম খুব বেশি হয় না।

মাংকিপক্স উপসর্গ কি?

উপসর্গ গুলো হলোঃ

– সাধারনত আক্রান্ত ব্যক্তি জ্বর ও মাথা ব্যথা দিয়ে শুরু হয়।
– আক্রান্ত ব্যক্তি খুবই দুর্বল ও অবসন্ন বোধ করেন।
-হাড়ের জয়েন্ট ফুলে যেতে পারে।
-এরপর শরীরে গুটি দেখা যেতে পারে যা সংক্রমক। এই গুটির জন্য আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে চুলকানি হয় এবং ক্ষত দেখা দেয়। রোগী সুস্থ হলেও এই ক্ষত রয়ে যায়।

চলুন জানি কিভাবে ছড়ায় মাংকিপক্স?

-সাধারনত রোগীর ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শ থেকে ছড়ায় এই রোগ। রোগীর ত্বক, বিছানা ও তৈজসপত্র থেকে ছড়াতে পারে।
– খুব কাছে গেলে কাশির মাধ্যমে ছড়াতে পারে।

চলুন জানি কতদিনের মধ্যে মাংকিপক্স থেকে সুস্থ হয়? সাধারনত দেখা যায় রোগ দেখা যাওয়ার ১৪ থেকে ২১ দিনের মধ্যে রোগী সুস্থ হয়।

মাংকিপক্সের চিকিৎসা কী?

এই রোগের কোন চিকিৎসা নেই, তবে অন্যান্য রোগের মত উপযুক্ত পদক্ষেপ নিতে পারলে এর প্রকোপ রোধ করা যায়। তবে দেখা গেছে গুটি বসন্তের টিকা মাংকিপক্স এর বিরুদ্ধে ৮৫% কার্যকর। বর্তমানে চিকিৎসায় এই টিকাই ব্যবহার করা হচ্ছে।

বিশেষজ্ঞ দের মতে ব্যাপক ভাবে ছড়িয়ে না পড়লে এই ভাইরাস নিয়ে দুশ্চিন্তা করার কিছু নেই। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এই ভাইরাসের প্রভাব মৃদু যা জলবসন্তের মতই এবং কয়েক সপ্তাহের মধ্যে রোগী সুস্থ হয়ে যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *