Bike or Car Digital Number is ready to take – Go to BRTA if you got mobile sms – Papers to take Digital Number Plate 2023

টাকা জমার কত দিন পর নম্বর প্লেট পাওয়া যায়?– নতুন বাইক বা গাড়ি কিনে থাকলে আপনার গাড়িতে নম্বর প্লেট লাগাতে হবে। আপনি নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে গাড়ির ফিটনেস শো করুন এবং রিসিট নিয়ে বাসার চলে আসুন। প্রায় দু মাস পর্যন্ত লেগে যাবে আপনার মোবাইলে মেসেজ আসবে। আপনি নম্বর প্লেটটি রেডি এমন মেসেজ আসলে বিআরটিএ’তে যেতে হবে।

গাড়ির মালিক ছাড়া অন্য কেউ গেলে হবে কি? না। গাড়ির মালিককেই যেতে হবে কারণ ঐ দিনই গাড়ির স্মার্ট কার্ড প্রাপ্তির জন্য ফিঙ্গার দিতে হবে। ছবি তোলা এবং ফিঙ্গার গাড়ির মালিক ছাড়া অন্য কারও দিলে তো হবে না। তাই গাড়ির মালিককেই ছবি তুলতে ও ফিঙ্গার দিতে আবশ্যিকভাবে যেতে হবে।

শো-রুম বা নিজে করলেও কি একই নিয়ম প্রযোজ্য? হ্যাঁ। নিয়মের কোন ভিন্নতা নেই। ফিঙ্গার শেষে নম্বর প্লেট আনতে যেতে হবে। ফিঙ্গার দেয়ার পর আপনার মোবাইলে ঐ সময় কোন মেসেজ আসবে না এবং কোন ডকুমেন্টও আপনাকে দিবে না। একটি কাউন্টার হতে আপনাকে বিআরটিএ কর রশিদ এবং গাড়ি চালনা করার অনুমতি পত্র দিবে যেখানে আপনি স্মার্ট কার্ড ছাড়া কত তারিখ পর্যন্ত গাড়ি চালাবেন সেই তারিখ উল্লেখ থাকবে।

বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথোরিটি (বি.আর.টি.এ) টাঙ্গাইল সার্কেল, টাঙ্গাইল । এখানে ডিজিটাল নাম্বার প্লেট বিতরণ করা হয়।

মনে রাখবেন আপনার এনআইডি আবশিকভাবে লাগবে। আর নম্বর প্লেট লাগানোর পর বিআরটিএ কর্তৃপক্ষ আপনার গাড়ির ইঞ্জিন নম্বর এবং চেসিস নম্বর চেক দিবে। আপনার বাইক বা কার এবং আপনার ছবি পাশাপাশি দাঁড় করিয়ে তুলবে যেখানে আপনাকে এবং গাড়িসহ নম্বর প্লেট দেখা যাবে।

Caption: Collect your number plate from brta office

ডিজিটাল নাম্বার প্লেট গ্রহণের নিয়মাবলী । এখানে ডিজিটাল নাম্বার প্লেট বিতরণ করা হয় এমন সাইন বোর্ড টাঙ্গানো থাকবে

  • (১) গাড়ির মালিক, মালিকের NID, MRP (Passport) মূল ও ফটোকপি অবশ্যই আনতে হবে।
  • (২) ব্যাংকে টাকা জমার মূল রশিদ অবশ্যই আনতে হবে এবং হারিয়ে গেলে জিডি করে জিডি কপি দিতে হবে।
  • (৩) প্রতিষ্ঠানের গাড়ির ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানের প্রত্যয়ন পত্র, যে আসবে তার NID কপি আনতে হবে।
  • (৪) প্লেট পাওয়ার পর অবশ্যই ছবি তুলে তারপর যেতে হবে।

নম্বর প্লেট নিতে যাওয়ার পূর্বে কি গাড়ির ফিটনেস দেখাতে হবে?

হ্যাঁ। যেদিন টাকা জমা দিবেন ঐ দিনই। গাড়ি সকল কাগজপত্র নিয়ে বিআরটিএতে গিয়ে গাড়ির ফিটনেই করিয়ে আনতে হবে। গাড়ি ভাল করে চেক করে কর্তৃপক্ষ ফিটনেই ক্লিয়ারেন্স দিবে। ফিটনেস দেখারও ২-৩ মাস পর আপনি গাড়ির নম্বর প্লেট পাবেন। নম্বর প্লেট গ্রহণের দিনই আপনাকে ফিঙ্গার এবং ছবি তুলতে হবে। ধন্যবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *