মেট্রো স্টেশনে ও ট্রেনে করণীয় ও বর্জনীয় ২০২৩ । ট্রেনে যে সকল কাজ করলে জরিমানা গুণতে হবে

সম্প্রতি মেট্রোরেল উদ্বোধন হয়ে গেলেও মেট্রোরেল আইন ২০১৫ সালেই পাশ হয়েছে – আইন ভঙ্গ করলেই শাস্তি ভোগ করতে হবে – মেট্রো স্টেশনে ও ট্রেনে করণীয় ও বর্জনীয় ২০২৩

আইন ভঙ্গ করলে কি শাস্তি আছে? – মেট্রোরেল আইন ২০১৫ তে বিভিন্ন অপরাধ সংঘটনের জন্য সর্বোচ্চ ১০ বছর কারাদণ্ড এবং ১০ কোটি টাকা জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। একই সঙ্গে মেট্রোরেল যদি দুর্ঘটনায় পতিত হয় এবং এতে যদি কোনো নাগরিক বা তার সম্পদ ক্ষতিগ্রস্ত হয়, সে ক্ষেত্রে ক্ষতিপূরণের বিধানও রাখা হয়েছে।

মেট্রোরেল কোন ক্ষতি করলে সম্পদের মালিক? এ আইনের ধারা ২১ মোতাবেক মেট্রোরেল দুর্ঘটনায় পতিত হওয়ার কারণে মেট্রোরেল ও যাত্রী ছাড়া অন্য কোনো ব্যক্তি বা স্থাপনা ও সম্পদের ক্ষতি হলে এবং সম্পদের মালিক কর্তৃক ক্ষতিপূরণের দাবি উত্থাপিত হলে, লাইসেন্সধারী ওই ব্যক্তির স্থাপনা বা সম্পদের জন্য মালিককে দাবি উত্থাপনের ১০ দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্ট কোম্পানির কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ আনার ব্যবস্থা করবেন। Metrorail Fair List । মেট্রোরেলের ভাড়ার তালিকা ২০২৩

মেট্রোরেল এবং যাত্রীদের নিরাপত্তায়  বিঘ্ন ঘটালে? এ আইনের ধারা ৩৫ মোতাবেক কোনো ব্যক্তির দ্বারা যদি মেট্রোরেলের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হয় বা বিঘ্নিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে এমন কাজ করেন, তাহলে তাকে অনধিক পাঁচ বছরের কারাদণ্ড বা অনধিক ৫০ লাখ টাকা অর্থদণ্ড কিংবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে।

ট্রেন বা স্টেশনে ময়লা ফেলা নিষেধ / ট্রেনে পোষাপ্রাণী বহন করতে পারবেন না

সহযাত্রীকে প্রয়োজনে সহায়তা করুন। মনোযোগ দিয়ে ঘোষণা শুনুন। সর্বক্ষেত্রে ভদ্রতা ও সৌজন্য বজায় রাখুন। প্রয়োজনে স্টেশন কন্ট্রোলারের সঙ্গে যোগাযোগ করুন

মেট্রো স্টেশনে ও ট্রেনে করণীয় ও বর্জনীয় ২০২৩ । ট্রেনে যে সকল কাজ করলে জরিমানা গুণতে হবে

মেট্রোরেল আইন ২০১৫ PDF Download

মেট্রোরেল আইন ২০১৫ । টিকিট বা পাস ছাড়া ভ্রমণ করলে কি হবে?

  • ধারা ৩৭: কোনো কর্মচারী যদি মেট্রোরেল ও এর যন্ত্রপাতি এমনভাবে ব্যবহার করেন যাতে কোনো যাত্রীর নিরাপত্তা বিঘ্নিত হয় বা হওয়ার আশঙ্কা থাকে এবং দায়িত্ব পালনকালে এমন কোনো কাজ করেন যার ক্ষমতা লাইসেন্সপ্রাপ্ত ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান তাকে দেননি, তাহলে তার এক বছরের কারাদণ্ড বা অনধিক পাঁচ লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ড হবে।

     

  • ধারা ৩৮: পরিদর্শককে দায়িত্ব পালনে কোনো ব্যক্তি বাধা দিলে, প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করলে, মিথ্যা বা বিভ্রান্তিকর তথ্য দিলে, তাকে অনধিক দুই বছরের কারাদণ্ড বা অনধিক ১০ লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে।

     

  • ধারা ৪০: কোনো ব্যক্তি যদি টিকিট বা বৈধ পাস ছাড়া বা অনুমোদিত দূরত্বের বেশি মেট্রোরেলে ভ্রমণ করেন বা ভাড়া এড়ানোর উদ্দেশ্যে বিকল্প কৌশল অবলম্বন করেন, তাহলে তাকে যাতায়াতের ভাড়ার ১০ গুণ পর্যন্ত জরিমানা বা অর্থ অনাদায়ে অনধিক ছয় মাস কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হতে পারে।

     

  • ধারা ৪৪: কোনো ব্যক্তি যদি এ আইনে উল্লিখিত কোনো অপরাধের জন্য দণ্ডিত হয়ে দণ্ড ভোগ করার পর আবার একই অপরাধ করেন, তাহলে ওই অপরাধের জন্য সর্বোচ্চ যে দণ্ড রয়েছে তাকে সেটির দ্বিগুণ দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে।

     

  • ধারা ৪৮: সরকার, এই আইনের অধীন যেকোনো ক্ষমতা বা দায়িত্ব সুনির্দিষ্ট শর্তে, নির্বাহী পরিচালক বা কর্তৃপক্ষের যেকোনো কর্মকর্তাকে অর্পণ করতে পারবে।

অনুমোদিতভাবে টিকিট বা পাস বিক্রি করলে?

অননুমোদিতভাবে মেট্রোরেলের টিকিট বা পাস বিক্রি বা জালজালিয়াতি করলে জরিমানা গুণতে হবে। মেট্রোরেল আইন ২০১৫ এর ধারা ৩৬ মোতাবেক কোনো ব্যক্তি যদি অননুমোদিতভাবে মেট্রোরেলের টিকিট বা পাস বিক্রি করেন, অথবা টিকিট বা পাস বিকৃত কিংবা জাল করেন, তাহলে তাকে অনধিক ১০ বছরের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১ কোটি টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে।

MRT Pass Registration Form । ঢাকা মেট্রোরেল পাশ সংগ্রহ বাবদ ৫০০ টাকা ব্যয় হবে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *